October 23, 2021, 2:09 pm

সিলেটে বিনামূল্যে ‘ওয়াইফাই’ : নামে আছে কাজে নেই

স্টাফ রিপোর্টার

দেশের প্রথম ‘ওয়াইফাই সিটি’ হিসেবে সিলেট যাত্রা শুরু করলে বিগত ২ বছরেও মিলছে না কাঙ্খিত সেবা। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৬২ এলাকার ১২৬টি স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা চালু রয়েছে। এসব এলাকায় নামে ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা চালু থাকলেও নগরবাসীরা বলছেন মিলছে না কাঙ্খিত সেবা।

কোথাও কোথাও নেটওয়ার্কের দূর্বল গতি আবার কোথাও লগইন করা যাচ্ছে না। ফলে নাগরিকরা হয়ে পড়েছেন হতাশ। কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ের এ প্রকল্পটি রীতিমত মুখ থুবড়ে পড়েছে। এ নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন নগরবাসীরা। তারা জানান, সিলেট নগরীকে ফ্রি ওয়াইফাই এর আওতায় আনা হচ্ছে জেনে সত্যিই আমরা খুব আনন্দিত হয়েছিলাম। কিন্তু এ প্রকল্প যে শুধু নামেমাত্র প্রকল্প তা ২ বছর পর প্রমাণিত হয়েছে। প্রকল্পচিকে জনবান্ধবমুখী প্রকল্প হিসেবে গড়ে তুলতে কর্তৃপক্ষকে এখনই উদ্যোগ নিতে হবে।

সিসিক সূত্রে জানা যায়, নগরীর ৬২ এলাকার ১২৬টি স্থানে চালু আছে ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা। এ সেবা প্রাপ্তির ইউজার নেম ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ আর পাসওয়ার্ড ‘জয় বাংলা’। নগরে থাকা যে কেউ এ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

প্রি ওয়াইফাই সুবিধার আওতায় আসা উল্লেখযোগ্য এলাকা হলো- চৌকিদেখি, দরগাগেট, চৌহাট্টা, বন্দরবাজার, হাসান মার্কেট, সুরমা ভ্যালি রেস্টহাউস, কিনব্রিজ, রেলওয়ে স্টেশন, বাস টার্মিনাল, কদমতলী, হুমায়ুন রশীদ চত্বর, উপশহর, টিলাগড়, শাহি ঈদগাহ, কুমারপাড়া, দক্ষিণ বালুচর, নাইওরপুল, মীরাবাজার, রায়নগর, সোবাহানীঘাট, ধোপাদিঘিরপাড়, নয়াসড়ক, কাজীটুলা, চৌহাট্টা, হাউজিং এস্টেট, সুবিদবাজার, মীরের ময়দান, পুলিশ লাইনস, রিকাবীবাজার।

উপশহর এলাকার বোরহান আনসারী বলেন, সিলেটে ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা থাকলেও তা শুধু নামের মধ্যে সীমাবদ্ধ। শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত অনেক চেষ্টা করে একদিনও ঠিকমত ব্যবহার করা যায়নি। কয়েক কোটি টাকা ব্যায় করে প্রকল্প বাস্তবায়ন করে যদি নাগরিকরা এর সুফল ভোগ করতে না পারেন তবে সম্পূর্ণ প্রকল্পটি বৃথা। তাই দ্রুত এর সমস্যাগুলো সমাধান করে নগরবাসীকে এর সুফল ভোগ করার সুযোগ দিতে হবে।

এ বিষয়ে ‘ডিজিটাল সিলেট সিটি’ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মধুসূদন চন্দ বলেন, প্রতিটি একসেস পয়েন্টে একসঙ্গে ৫০০ জন যুক্ত থাকতে পারবেন। এর মধ্যে একসঙ্গে ২০০ জন উচ্চগতির ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। কেবল সেবা চালু হয়েছে। তাই কিছু কিছু ক্ষেত্রে ইন্টারনেট সেবা পেতে সমস্যা হচ্ছে। তবে দ্রুতই এ সমস্যা কেটে যাবে। ১২৬টি স্থানে নগরবাসী বিনা মূল্যে ওয়াইফাই সেবা পাচ্ছে। তবে সেবাগ্রহণকারীরা যাতে নিষিদ্ধ ও অপ্রয়োজনীয় কোনো ওয়েবসাইটে ঢুকতে না পারেন, সে ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

ডিজিটাল সিলেট সিটি প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, উন্মুক্ত দরপত্রে অংশ নিয়ে নগরীতে ওয়াইফাই সংযোগ চালুর কাজ পায় ‘আমরা নেটওয়ার্ক’ নামক প্রতিষ্ঠানে। আমরা নেটওয়ার্ক ওয়াইফাই সংযোগ চালুর কাজ করেছে। এ কাজে রাউটার, ক্যাবল প্রভৃতি সরঞ্জাম আনা হয়েছে চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের কাছ থেকে।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সিলেটকে দেশের প্রথম ডিজিটাল নগর হিসেবে গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে ‘ফ্রি ওয়াইফাই সুবিধা’ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯ সালের ২৭ জুন সিলেটে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পররষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ ‘ডিজিটাল সিলেট’ প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন। ‘ডিজিটাল সিলেট সিটি’ প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এটি বাস্তবায়ন করে।

আইসিটি বিভাগের তত্বাবধানে ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন হয়। এ কাজের অংশ হিসেবে সিলেটের ৬২টি এলাকার ১২৬টি স্থান এবং কক্সবাজার জেলা শহরের ৩৫টি এলাকার ৭৪টি স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই জোন করা হয়। সিলেটের প্রকল্প উদ্বোধন হয় ২০১৯ সালের ২৭ জুন। অন্যদিকে কক্সবাজারে এ প্রকল্প উদ্বোধন হয় ২০২০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি। সে হিসাবে সিলেটই প্রথম দেশের ‘ওয়াইফাই সিটি’ হিসেবে যাত্রা শুরু করল। সিলেটের এই ওয়াইফাই জোনগুলো তদারকি করবে সিলেট সিটি কর্পোরেশন।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান বলেন, ভবিষ্যতে এ কার্যক্রমের তদারকি করবে সিলেট সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ। আপাতত প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরাই এর দেখভাল করছেন। তাই এখনো এ কাজের দেখাশোনার ভার সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


লাইক দিন
%d bloggers like this: